শনিবার | ৮ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | হেমন্তকাল | ২৪শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

করোনা আতঙ্ক দেশে দেশে- জার্মান

ইউরোপের অন্যতম প্রধান শিল্পোন্নত দেশ জার্মান ১৬টি রাজ্য নিয়ে গঠিত একটি সংযুক্ত ইউনিয়ন। এটির উত্তর সীমান্তে উত্তর সাগর, ডেনমার্ক ও বাল্টিক সাগর, পূর্বে পোল্যান্ড ও চেক প্রজাতন্ত্র, দক্ষিণে অস্ট্রিয়া ও সুইজারল্যান্ড এবং পশ্চিম সীমান্তে ফ্রান্স, লুক্সেমবুর্গ, বেলজিয়াম এবং নেদারল্যান্ড্‌স অবস্থিত। বার্লিন জার্মানের বৃহত্তর শহর এবং রাজধানী।

জার্মানির আয়তন ৩,৫৭,৩৮৬ বর্গকিলোমিটার (১,৩৭,৯৮৮ বর্গমাইল)। ২০১১ আদমশুমারি হিসেব অনুযায়ী মোট লোকসংখ্যা ৮ কোটি ২ লক্ষ ১৯ হাজার ৬ শত ৯৫ জন। ২০১৮ সালের আনুমানিক হিসেব অনুযায়ী লোকসংখ্যা ৮ কোটি ২৮ লক্ষ।

প্রথম করোনা রোগী সনাক্তঃ

২৭ জানুয়ারি সোমবার রাতে জার্মান স্বাস্থ্য বিভাগের মুখপাত্র জানিয়েছেন, জার্মানির বাভারিয়া প্রদেশে করোনাভাইরাস আক্রান্ত এক ব্যক্তিকে শনাক্ত করা হয়েছে। এই প্রথম দেশটিতে প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে আক্রান্ত কাউকে শনাক্ত করা হলো। বাভারিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

আক্রান্ত ব্যক্তিকে রাজ্যের স্টার্নবার্গ এলাকায় আলাদা করে রাখা হয়েছে বলেও জানিয়েছে জার্মানির সংবাদমাধ্যম ডয়েচে ভেলে। করোনায় প্রথম মৃত্যুঃ ৯ মার্চ সোমবার করোনভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম দুইজন মারা গিয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছে পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য উত্তর রাইন-ওয়েস্টফালিয়ায় স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের একজন মুখপাত্র।

স্থানীয় কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে তিনি বলেছেন, করোনায় আক্রান্ত হয়ে এসেন শহরে ৮৯ বছর বয়সী একজন মহিলা সহ হেইনসবার্গের আক্রান্ত অঞ্চলে আরও একজন রোগী মারা গেছেন। বার্লিন রয়টার্স। করোনায় আক্রান্ত বাংলাদেশিঃ জার্মানিতে এখন পর্যন্ত ১২ প্রবাসী বাংলাদেশি প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে বলে জানা গেছে। আক্রান্তদের দুইজন নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছেন।

আক্রান্তরা বার্লিন, মিউনিখ, ম্যুন্সটার, ক্রেফিল্ড এবং ডর্টমুন্ডের বাসিন্দা। রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ আহমেদ আক্রান্ত প্রবাসী বাংলাদেশিদের সার্বক্ষণিক খোঁজ রাখছেন। – আমাদের প্রতিদিন। সর্বশেষঃ জন হপকিন্স ইউনিভার্সিটি তথ্যানুসার, ১০ এপ্রিল ৩৯৩৬ জন আক্রান্ত এবং ১২৯ জন মারা যান।

এর আগের দিন বৃহস্পতিবার এ সংখ্যা ছিল, আক্রান্ত ৪৯৩৯ জন এবং নিহত ৩৫৮ জন। তবে আক্রান্তের দিক দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র, স্পেন, ইতালি এবং ফ্রান্সের পরেই জার্মানের (৫ম) অবস্থান এবং মৃত্যুর দিক থেকে চীন ও বেলজিয়ামের পরেই অষ্টম অবস্থানে জার্মান। এ পর্যন্ত জার্মানিতে ৫৩,৯১৩ জন সুস্থ হয়েছেন এবং শতকরা ৫ ভাগ রোগী মারা যাচ্ছেন।

 

বিডি রয়টার্স/

 

Translate »