মঙ্গলবার | ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | হেমন্তকাল | ২০শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

নীলফামারীতে একযোগে  ধর্ষণ-নারী নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং

নীলফামারী : নীলফামারীতে একযোগে ‘নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ’ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জেলা পুলিশের আয়োজনে শনিবার (১৭ অক্টোবর)  সকাল দশটা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত  এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার ৮নং খুটামারা ইউনিয়ানে আট নম্বর বিটের সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন জলঢাকা থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) পলাশ আধিকারী। এতে জলঢাকা থানার উপ-সহকারী পরিদর্শক(এএসআই) মঞ্জুরুল আলম , নীলফামারী জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( সার্কেল) মোঃ রুহুল আমিন, ৮নং খুটামারা ইউনিয়ানের চেয়ারম্যান আবু সাঈদ শামীমসহ অনন্যরা , বক্তব্য দেন।

সমাবেশে নারী নির্যাতন, বাল্য বিয়ে, জুয়া, মাদক, ধর্ষণ, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে পুলিশকে সহযোগীতা করার আহবান জানিয়ে বক্তারা বলেন, পুলিশের সেবা এখন জনগণের দোড়গোড়ায় এসে পৌঁছেছে। এরফলে অপরাধ প্রবণতা যেমন কমে আসবে তেমনি সামাজিক শৃক্সখলা বিরাজ করবে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) মোঃ রুহুল আমিন বলেন, পুলিশ ও জনতা সম্মিলিত ভাবে কাজ করতে চায়। এজন্য পুলিশকে তথ্য দিয়ে সহযোগীতা করতে হবে। যাতে অপরাধ কর্মকান্ড না ঘটে।

তিনি আরও  বলেন, আপনারা তথ্য দিয়ে যদি একহাত এগিয়ে আসেন আমরা (পুলিশ) সেবা দেয়ার জন্য দশ হাত এগিয়ে যাবো। বিট পুলিশিং সেবার মাধ্যমে মানুষের ঘরে ঘরে পুলিশ পৌঁছেছে কারণ অপরাধ যাতে শুণ্যের কোটায় নামিয়ে আনা যায়।

ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদন্ড জানিয়ে মোঃ রুহুল আমিন বলেন আরও বলেন, যারা এ রকম ঘটনা ঘটাতে আগ্রহ প্রকাশ করতে চান তাদের জেনে রাখতে হবে মৃত্যুদন্ড নিশ্চিত তার জন্য।

বিডি রয়টার্স/এইচ এ

Translate »