ভিক্ষুকের হাতিয়ে নেয়া টাকা উদ্ধার করলেন ওসি

বরগুনা: ভিক্ষা করে ১০ বছরে ১ লাখ টাকা জমিয়েছিলেন মন্টু। ভুক্তভোগী মন্টু মিয়া (৫০) জন্মের পর থেকেই শারীরিক প্রতিবন্ধী। একটু বাড়তি লাভের আশায় মন্টু তার জমানো ১ লক্ষ টাকা এলাকার নূর জামাল মুন্সিকে দেন।

কিন্তু লাভ তো দূরে থাক আসল টাকাই ফেরত পাচ্ছিলেন না ভুক্তভোগী মন্টু।কষ্টের টাকা ফেরত না পেয়ে সবশেষে তালতলী থানায় অভিযোগ দেন তিনি।

অভিযোগ পেয়ে তালতলী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুজ্জামান মিয়া প্রতারক নূর জামাল মুন্সির কাছ থেকে মন্টুর টাকা আদায়ের ব্যবস্থা করেন। এরপরে ভুক্তভোগী মন্টু মিয়াকে তার কষ্টের টাকা ফেরত দেন জামাল।

রোববার (২৮ মার্চ) বিকেলে আদায় করা ১ লাখ টাকা ভিক্ষুক মন্টু মিয়ার হাতে তুলে দিলেন ওসি মো. কামরুজ্জামান মিয়া।

এই বিষয়ে ওসি মো. কামরুজ্জামান মিয়া বলেন, শারীরিক প্রতিবন্ধী মন্টু মিয়া থানায় অভিযোগ দিলে বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখা হয়। দুই দিনের মাথায় ভুক্তভোগী মন্টুর টাকা আদায় করে তার হাতে তুলে দেয়া হয়।

বিডি রয়টার্স/এ.সি