নাটোরে শিশু মহিবুল্লার হত্যা রহস্য উন্মোচন

নাটোর: নাটোরের গুরুদাসপুরের শিশু মহিবুল্লার হত্যা রহস্য উন্মোচন করেছে পুলিশ। হত্যার অভিযোগে নয়ন (১৩) নামে এক কিশোরকে আটক করা হয়।

শনিবার দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এই তথ্য জানান পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা।

পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা জানান ন্যাড়া মাথা নিয়ে ঠাট্টা-বিদ্রূপ করা এবং মোবাইলে গেমস খেলতে না দেওয়ায় শিশু মহিবুল্লাহ কে গলা কেটে হত্যার কথা স্বীকার করেছে অভিযুক্ত নয়ন মিয়া।

তিনি আরো জানান, হত্যাকাণ্ডের পর পুলিশি তদন্তে বেরিয়ে আসে যে, শিশু মহিবুল্লার পাখি দেখানোর নাম করে নয়ন ভুট্টা ক্ষেতের মধ্যে নিয়ে যায়। সেখানে প্রথমে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মহিবুল্লার ঘাড়ের পেছনে এবং পিঠে আঘাত করে হত্যা করে।

উল্লেখ্য গত ৬ মে বিকেল সাড়ে পাঁচটায় সিংড়া উপজেলা ঘটিয়া গ্রামের পল্লী চিকিৎসক ইসহাক আলীর ছেলে তার মামার বাড়ি গুরুদাসপুর থেকে মহিবুল্লাহ নিখোঁজ হলে অনেক খোঁজাখুঁজির পরে উপজেলার সাবগাড়ি এলাকার ভুট্টাক্ষেত থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

 

বিডি রয়টার্স/এসএস