এক ঘন্টার অগ্নিকাণ্ডে শতাধিক দোকান পুড়ে ছাই

এক ঘন্টার অগ্নিকাণ্ডে শতাধিক দোকান পুড়ে ছাই

পটুয়াখালী: পটুয়াখালী পৌর শহরের নিউ মার্কেট এলাকায় অগ্নিকাণ্ডে শতাধিক দোকান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) ভোরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পটুয়াখালী, বারেকগঞ্জ, কলাপাড়া ও বরগুনা থেকে ফায়ার সার্ভিসের ছয়টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় এক ঘণ্টার প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

নিউ মার্কেটের চাল ব্যবসায়ী মো. জহিরুল বলেন, ‘কেউ দেখার আগেই দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়ে। আমার দোকানে প্রায় এক হাজার বস্তুা চাল ছিল। সব পুড়ে গেছে। আমার আর কিছুই নেই। নিঃস্ব হয়ে গেছি।’

বাজারের এক চাল ব্যবসায়ী বলেন, ‘আমাদের দোকানে পরিকল্পিতভাবে আগুন দেওয়া হয়েছে। দেড় মাস ধরে জায়গা ছেড়ে দেওয়ার জন্য বলা হচ্ছে। তাদের কথা না রাখায় আজকে তার মাশুল দিতে হলো।’

কারা জায়গা ছাড়তে বলছে—জানতে চাইলে তিনি নাম বলতে রাজি হননি। ওই ব্যবসায়ী বলেন, ‘রাত ১২টার সময়ও মার্কেটে ছিলাম। তখন সব ঠিক ছিল। আগুন লেগেছে রাত ২টার দিকে। আগুনে প্রায় শতাধিক দোকান পুড়ে গেছে।’

পটুয়াখালী ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মো. জাকির হোসেন বলেন, বাজারের উত্তর পাশ থেকে আগুন লেগেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত। অধিকাংশ চায়ের, মুদি, চালের, রঙের ও বিভিন্ন মেশিনের দোকান ছিল। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণ এখনও জানা যায়নি। তদন্ত সাপেক্ষে বলা যাবে।

ফায়ার সার্ভিসের এই কমর্ককর্তা বলেন, ভোর ৪টা ৪৫ মিনিটে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে কল আসে। তারপর আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করি। অবস্থা ভয়াবহ দেখে বারেকগঞ্জ, আমতলী ও কলাপাড়া ফায়ার স্টেশনে খবর দেওয়া হয়। এতে ফায়ার সার্ভিসের মোট ছয়টি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে প্রায় এক ঘণ্টার প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

পটুয়াখালী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ বলেন, ফায়ার সার্ভিসের ছয়টি ইউনিট ও স্থানীয়রা মিলে আগুন নিয়ন্ত্রণে এনেছে। এখন চাপা আগুন আছে। শতভাগ নিয়ন্ত্রণে কাজ চলছে। এখনও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণ করা যায়নি।

 

বিডি রয়টার্স/এসএস



আজকের সব খবর
সারাবাংলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত