সন্তান দেখতে গিয়ে শ্বশুরবাড়িতে গোপনাঙ্গ হারালেন বাবা!

সুনামগঞ্জ: সন্তানকে দেখার আমন্ত্রণ জানিয়ে বাড়িতে ডেকে নিয়ে গোপনাঙ্গ কেটে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে স্ত্রীসহ শ্বশুর-শাশুড়ির বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় স্ত্রী নাজমুন নাহার, শ্বশুর সিদ্দিক মিয়া ও শাশুড়ি আয়েশা গেডুনী নামে ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার (১ মে) দিবাগত রাতে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়নের খাগেরগাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরে আহত আবুল বাশারকে (২৮) মুর্মূষু অবস্থায় সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

জানা যায়, ৪ বছর আগে উপজেলার জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়নের জাহাঙ্গীরনগর গ্রামের ডা. মো. হোসেন আলী‘র ছেলে মো. আবুল বাশারের সাথে একই ইউনিয়নের খাগেরগাঁও গ্রামের সিদ্দিক মিয়ার মেয়ে নাজমুন নাহার-এর সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পর প্রথম সন্তানের জন্মদান করেন এই দম্পতি। পারিবারিক দ্বন্দ্বের জেরে গত ৬ মাস পূর্বে দুই পরিবারের সম্মতিক্রমে কাজী অফিসের মাধ্যমে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। এর পর থেকে ৫ মাসের শিশু সন্তান নিয়ে বাবার বাড়িতে থাকেন নাজমুন নাহার।

গত শনিবার রাতে শিশু সন্তান অসুস্থ বলে তালাকপ্রাপ্ত স্বামী আবুল বাশারকে সন্তানকে দেখার আমন্ত্রণ জানিয়ে বাড়িতে ডেকে নিয়ে আসেন নাজুমন নাহার। বাড়িতে আসার এক পর্যায়ে সে বাবা মায়ের সাহায্য নিয়ে আবুল বাশারের গোপনাঙ্গ কাটেন বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীর পরিবার। পরে আহত আবুল বাশার স্থানীয়দের সাহায্যে উদ্ধার হয়ে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে গেলে অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

সদর মডেল থানার ওসি . সহিদুর রহমান বলেন, গোপনাঙ্গ কর্তনের একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগ পাওয়ার পর অভিযুক্ত স্ত্রী ও শ্বশুর ও শাশুড়িকে আটক করা হয়েছে।

বিডি রয়টার্স/এ.সি