বিতর্কিত ধর্মগুরু রাম রহিম সিংয়ের যাবজ্জীবন

রাম রহিম সিং

২০০২ সালে রঞ্জিত সিং হত্যার ঘটনায় ডেরা সাচ্চা সওদার প্রধান বিতর্কিত ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিম সিংকে আজীবন কারাদণ্ডের সাজা শোনালেন ভারতের পঞ্চকুলার বিশেষ সিবিআই আদালত।

গত ৮ অক্টোবর ডেরা সাচ্চা সৌদা প্রধান এবং আরও চারজনকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়। ২০০২ সালে সাংবাদিক এবং রাম রহিমের তৎকালীন আপ্ত সহায়ক রঞ্জিত সিংহকে হত্যার দায়ে তাকে এই সাজা শোনানো হয়েছে। যাবজ্জীবন কারাদণ্ডর সাথে তাকে আর্থিক জরিমানাও করা হয়েছে।

আদালত জানিয়েছে, রীতিমতো পরিকল্পনা করেই রণজিৎ সিংকে হত্যা করেন রাম রহিম। রোহতাক জেল থেকে রাম রহিম ক্ষমা প্রার্থনা করলেও তার আবেদন গৃহীত হয়নি। সাধারণ একজন মানুষকে পরিকল্পিত হত্যার দায়ে তাকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। গুরমিত রাম রহিম সিং, জাসবীর সিং, সাবদিল সিং, কৃষ্ণ লাল এবং ইন্দ্র সাইকে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২ (হত্যা) এবং ১২০ বি (ফৌজদারি ষড়যন্ত্র) ধারায় রঞ্জিত সিংহ হত্যার জন্য দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। জসবীর সিং, কৃষ্ণ লাল এবং ইন্দর সাইকে অস্ত্র আইনেও দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে।

সিবিআই চার্জশিট অনুযায়ী, ডেরা প্রধানের ক্যাম্পের ভিতরে নারী শিষ্যাদের যৌন হেনস্থার অভিযোগ তুলে একটি বেনামী চিঠি প্রচার করার বিষয়ে শিষ্য রঞ্জিত সিংকে সন্দেহ করেছিলেন গুরমিত রাম রহিম সিং। থানেসার থানায় হত্যা ও অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের অভিযোগে একটি এফআইআর দায়ের করা হয়। ২০০৩ সালে হাইকোর্ট এই ঘটনায় সিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দেন। ২০০৭ সালে সিবিআই ডেরা প্রধানের বিরুদ্ধে চার্জশিট জমা দেয়।

সাজার আগে হরিয়ানার পঞ্চকুলা জেলায় ফৌজদারি কার্যবিধির ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। এই নিয়ে দ্বিতীয় মামলায় তাকে আজীবন কারাদণ্ড দেওয়া হলো।

২০১৭ সালে গুরমিত রাম রহিম সিং দুই শিষ্যাকে ধর্ষণের দায়ে ২০ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হন। দুই বছর আগে, সাংবাদিক রাম চন্দ্র ছত্রপতি হত্যার দায়ে দলের প্রধানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছিল।

সূত্র: জি২৪

 



আজকের সব খবর