ব্রিটিশ এমপিকে হত্যা: সন্দেহভাজন আটক

ব্রিটিশ এমপি স্যার ডেভিড আমেসকে হত্যার ঘটনায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে গ্রেপ্তার হওয়া যুবকের নাম আলী হারবি আলী। শুক্রবার পর্যন্ত পুলিশ তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, ২৫ বছর বয়সী আলীকে কয়েক বছর আগে সন্ত্রাসবিরোধী প্রকল্পের আওতায় নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তিনি কখনোয়াই এমআই৫-এর আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হননি।

হোয়াইটহল কর্মকর্তারা বলেন, ব্রিটিশ এমপিকে হত্যায় যাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, তিনি সোমালি বংশোদ্ভূত এক ব্রিটিশ নাগরিক। নাম আলী হারবি আলী। পুলিশ বলছে, এসেক্সে এমপিকে হত্যায় জড়িত সন্দেহে এক ব্যক্তিকে ধরা হয়েছে। বর্তমানে তাকে লন্ডনের পুলিশ স্টেশনে আটকে রাখা হয়েছে।

এ ঘটনায় আর কেউ জড়িত নেই বলেই মনে করেন কর্মকর্তারা। ১৯৮৩ সাল থেকে সাউথএন্ড ওয়েস্টের রক্ষণশীল দলের এমপির দায়িত্ব পালন করছেন স্যার ডেভিড। শুক্রবার লেগ-অন-সিতে বেলফেয়ারস মেথোডিস্ট গির্জায় তার আসনের লোকজনের সঙ্গে নিয়মিত বৈঠক করার সময় একাধিকবার ছুরিকাঘাতে তিনি নিহত হয়েছেন।

অ্যামেস চার কন্যা ও এক পুত্রের জনক ছিলেন। তার স্মরণে শনিবার রাতে লে-অন-সিতে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়। প্রথমে খুনের সন্দেহভাজন হিসেবে আলীকে আটক করা হয়েছিল, কিন্তু পরে শুক্রবার রাতে তাকে সন্ত্রাসবাদ আইনে আটক করা হয়।

শনিবার ম্যাজিস্ট্রেটরা আলীকে ২২ অক্টোবর, শুক্রবার পর্যন্ত হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দেন গোয়েন্দাদের। এক বিবৃতিতে মেট্রোপলিটন পুলিশ জানিয়েছে, হামলায় যে ছুরিটি ব্যবহৃত হয়েছিল ঘটনাস্থল থেকে সেটি উদ্ধার করা হয়েছে।

শনিবার সারাদিন ধরে লন্ডনের তিনটি ঠিকানায় তল্লাশি চালিয়েছেন পুলিশ কর্মকর্তারা। এ দিন অ্যামেসের মৃতদেহের ময়নাতদন্তও হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

 

বিডি রয়টার্স/এসএস



আজকের সব খবর