স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করলেন এলাকাবাসী

স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করলেন এলাকাবাসী bd royters

জামালপুর: নির্বাচন আসে, নির্বাচন যায়। প্রতিশ্রুতির ফুলঝুঁড়িতে নির্বাচিত হন জনপ্রতিনিধি। পরে আর কথা রাখেন না। তাই বাধ্য হয়ে নিজেদের চলাচলের পথ নিজেরাই নির্মাণে উদ্যোগী হলেন নদীর তীরবর্তী মানুষ।

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার চরপুটিমারী ও গাইবান্ধা ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী কান্দারচর উদয়নগর গ্রামে পারাপারে দুর্ভোগের শিকার ভুক্তভোগী মানুষ নিজেরাই স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করেছেন।

সরেজমিনে দেখা যায়, দশআনী নদীর শাখা কাটাখালী নদীর ওপর স্থানীয়রা বাঁশের সাঁকোটি নির্মাণ করেছেন।

সাঁকোর একপাশের খুঁটি পড়েছে গাইবান্ধা ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী এলাকায়। অপরপাশের খুঁটি চরপুটিমারী ইউনিয়নের সীমান্তে। কাটাখালী নদীতে সারাবছর পানি থাকে। উদয়নগর গ্রামে বসবাসরত মানুষের পারাপারে কাটাখালী নদীতে নির্মাণ করা হয়নি কোনো ব্রিজ।

বিশেষ করে বর্ষা মৌসুমে পারাপারে চরম ভোগান্তির শিকার হন স্থানীয় বাসিন্দারা। কেউ পারাপারে ব্যবহার করেন ডিঙি নৌকা। কেউ কেউ পারাপার হন কলাগাছের ভেলায়। এতে দুর্ঘটনা ঘটারও নজির রয়েছে। ওই এলাকার বাসিন্দা অন্তত দুই হাজার মানুষ কাটাখালী নদী অতিকষ্টে এভাবেই পারাপার হয়ে আসছেন দিনের পরে দিন।

জামরুল আলী, তোতা মিয়া, মজা আলীসহ স্থানীয়রা জানান, ‘আমাদের গ্রাম দুই ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী, তাই উন্নয়নের কোনো ছোঁয়া লাগেনি। কাটাখালী নদী পারাপারে আমরা দুর্ভোগ পোহাচ্ছি। সেকারণেই বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করেছি।’

এলাকাবাসী জানান, নিজেরা বাড়ি বাড়ি থেকে বাঁশ, খুটি, রশিসহ সাঁকো নির্মাণের জিনিসপত্র সংগ্রহ করেন এবং সবাই শ্রম দিয়ে কয়েকদিনে তা সম্পন্ন করেন।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা জালাল উদ্দীন জানান, ‘উদয়নগর গ্রামে অন্তত দেড় হাজার মানুষের বসবাস। অধিকাংশ মানুষই দরিদ্র। এসব মানুষের যাতায়াতে ব্রীজ নির্মাণ জরুরি।’

চরপুটিমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সামছুজ্জামান সুরুজ মাস্টার জানান, ‘কাটাখালী নদীতে ব্রিজ নির্মাণ করতে মোটা অংকের অর্থের প্রয়োজন। সে কারণেই ইউনিয়ন পরিষদ থেকে আমরা চাইলেও সেখানে অর্থের অভাবে ব্রিজ নির্মাণ করতে পারিনি।

অপরদিকে গাইবান্ধা ইউপি চেয়ারম্যান মাকছুদুর রহমান আনছারী একইসুরে জানান, ‘কাটাখালী নদীতে ব্রিজ নির্মাণের প্রয়োজন আছে। কিন্তু আমাদের বরাদ্দের অর্থ না থাকায় সেখানে ব্রিজ নির্মাণ সম্ভব হয়নি।’

এ ব্যাপারে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এডভোকেট . এস এম জামাল আব্দুন নাছের বাবুল জানান, ‘সরেজমিনে খোঁজখবর নিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।’

 

বিডি রয়টার্স/এসএস

খবর বিভাগের সর্বাধিক পঠিত