চিপস আর পানিই তাদের ঈদের সকালের নাস্তা

চিপস আর পানিই তাদের ঈদের সকালের নাস্তা bd royters

ঢাকা: ঈদে নাড়ির টানে বাড়ি ফিরে পরিবার পরিজন নিয়ে ঈদ করার কথা থাকলেও ঈদের দিন সকালেও পৌছাতে পারেনি বাড়িতে। ঈদের সকালটা কাটছে  ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে। সড়কের কালিহাতী উপজেলার আনালিয়া বাড়ি থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত ১০ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে এখনো রয়েছে তীব্র যানজট। এ সময় আশপাশে দোকান না পেয়ে ঘুরে ঘুরে চিপস বিক্রি করা লোকজনের কাছ থেকে চিপস আর পানি খেয়েই পার করেছেন ঈদের সকালের নাস্তা।

বুধবার (২১ জুলাই) সকালে এমনই চিত্র দেখা গেছে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে।

জানা গেছে. গেলো কয়েকদিন ধরেই ঘরমুখো মানুষ ও অতিরিক্ত যানবাহনের কারণে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। যানজটের কারণে চালক ও যাত্রীদের পোহাতে হচ্ছে চরম ভোগান্তি। বিশেষ করে নারী ও শিশুদের ভোগান্তি অনেক চরমে উঠেছে। এরই মধ্যে শত শত মানুষের ঈদ কাটছে রাস্তায় যানবাহনের মধ্যে।

ফেরদোস নামে এক যাত্রী জানান, পরিবার নিয়ে মঙ্গলবার (২০ জুলাই) বেলা ১২টার দিকে আশুলিয়া থেকে রংপুরের উদ্দেশে রওনা দিয়েছি। এখনো বঙ্গবন্ধু সেতু পার হতে পারিনি। তাই শিশু সন্তানসহ পরিবারের সদস্যদের নিয়ে চিপস আর পানি খেয়ে ঈদের সকাল কাটালাম। কখন বাড়ি ফিরতে পারবো তাও বলতে পারছি না।

রফিকুল ইসলাম নামে আরেক যাত্রী জানান, ৩ ঘণ্টার রাস্তা ১৮ ঘণ্টায় গোহালিয়া বাড়ি এসেছি। রাতেও খাইনি। বিস্কুট আর পানি খেয়ে ঈদের সকাল পার করলাম। বাড়ি ফেরা নিয়া অনিশ্চয়তায় রয়েছি।

এলেঙ্গা হাইওয়ে থানার ইনচার্জ ইয়াসির আরাফাত জানান, মহাসড়কে বঙ্গবন্ধু সেতু সংযোগ সড়কে গাড়ির চাপ রয়েছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে স্বাভাবিক হয়ে আসবে।

 

বিডি রয়টার্স/এসএস