ভিটামিন ও প্রো-ভিটামিন সমৃদ্ধ ভুট্টার জাত উদ্ভাবন বিজ্ঞানীদের

দেশে যে পরিমাণে ভুট্টার উৎপাদন হয় তার বেশিরভাগই ব্যবহৃত হয় পোল্ট্রি ফিড হিসেবে। তবে ভুট্টা যেন মানুষের খাদ্য হিসেবে অধিক ব্যবহৃত হয় সেজন্য ভিটামিন ও প্রো-ভিটামিন সমৃদ্ধ ভুট্টার জাত উদ্ভাবন করেছে বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইন্সটিটিউটের বিজ্ঞানীরা। তারা আশা করছেন- আগামী বছর থেকেই এই জাত কৃষকের মাঝে সরবরাহ করা হবে।

কৃষকরা জানান, নতুন এই জাতের কথা জেনে অধিক লাভবান হতে কৃষকরাও আগ্রহী আগামীতে তাদের জমিতে চাষাবাদ করার।

বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনষ্টিটিউটের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. আলমগীর মিয়া জানান, ইতিমধ্যেই যেসব ভুট্টার চাষাবাদ হয় তাতে গ্রহনযোগ্য ভিটামিন এ থাকে না। তবে নতুন যে জাত উদ্ভাবন করা হয়েছে তাতে করে সহজেই ভিটামিন এ দেহে আত্মীকরন হবে। নতুন জাত সম্প্রসারিত হলে ভিটামিন এ’ এর চাহিদা পুরন হবে।

বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনষ্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. এছরাইল হোসেন জানান, রোগবালাই ও পোকামাকড়ের উপদ্রপ কম, ফলন ভাল এবং বাজারেও চাহিদা থাকায় প্রতি বছরই বাড়ছে ভুট্টার আবাদ। এ বছরও দেশে প্রায় ৫ লাখ ১৭ হাজার হেক্টর জমিতে ভুট্টার চাষ হয়েছে যেখানে প্রায় ৫১ লাখ মে.টন উৎপাদন হবে।

তবে দেশে যে পরিমাণে ভুট্টা উৎপাদন হয় তার বেশিরভাগই ব্যবহৃত হয় পোল্ট্রি ফিড হিসেবে। পুষ্টিগুন সমৃদ্ধ ভুট্টা যাতে মানুষের খাদ্য হিসেবে ব্যবহৃত হয় সেজন্য গবেষণা চালিয়ে আসছিল বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইন্সটিটিউটের বিজ্ঞানীরা। ইতিমধ্যেই গবেষণা মাঠে ভুট্টার নতুন জাত উদ্ভাবন করেছেন তারা। যা প্রো-ভিটামিন সমৃদ্ধ বিশেষ করে ভিটামিন এ ও নিউট্রিয়েন্ট অনেক বেশি, শিশুখাদ্যের যোগান দিতে এই জাত কাজ করবে।

নতুন জাত উদ্ভাবনের পাশাপাশি ভুট্টা থেকে ভোজ্য তেল তৈরীর জন্য দেশের প্রখ্যাত বিজ্ঞানীদের সমন্বয়ে প্রতিষ্ঠানটিতে গবেষণা কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

 

বিডি রয়টার্স/এসএস