পরিচালকসহ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের ৭ কর্মকর্তা গ্রেপ্তার

জামালপুরগামী কমিউটার ট্রেনে ডাকাতির ঘটনায় গ্রেপ্তার ৫

অনলাইন টিকেটিং এজেন্সি টুয়োন্টিফোর টিকেট ডটকমের ডিরেক্টর মিজানুর রহমানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। এছাড়া, গ্রাহকদের কাছ থেকে আড়াই কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান থলেডটকম ও উইকুমডটকম – এর ৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সোমবার (১১ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সিআইডি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান অতিরিক্ত ডিআইজি কামরুল আহসান। প্রতারণার শিকার মো. খায়রুল আলম মীর নামে এক যুবক বাদী হয়ে মামলা করলে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- উইকম ও থলেডটকরে হেড অব অপারেশন্স মো. নজরুল ইসলাম, একাউন্ট কর্মকর্তা সোহেল হোসেন, ডিজিটাল কমিউনিকেশন্স কর্মকর্তা মো. তারেক মাহমুদ অনিক, সেলস এক্সিকিউটিভ কর্মকর্তা সাজ্জাত হোসেন, কলসেন্টার এক্সিকিউটিভ কর্মকর্তা মুন্না পারভেজ এবং সুপারভাইজার মো. মাসুম হোসেন।

অতিরিক্ত ডিআইজি বলেন, বিমানের টিকিট বিক্রির নামে গ্রাহকের কাছে ৫০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে অনলাইন টিকেটিং এজেন্সি টুয়োন্টিফোর টিকেট ডটকমের ডিরেক্টর মিজানুর রহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, কম মূল্যে ইলেকট্রনিকস পণ্যসামগ্রী বিক্রির নামে এ প্রতারণা করে আসছিল প্রতিষ্ঠানগুলো। এছাড়া, ই-কমাসের নামে সন্দেহজনক লেনদেন করছে এমন ৬০টি প্রতিষ্ঠানের তালিকা সিআইডির কাছে আছে, যার মধ্যে ৩০-৩২টি প্রতিষ্ঠানকে মনিটরিং করা হচ্ছে।

কামরুল আহসান জানান, রিং আইডির সব ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করা হয়েছে, প্রতিষ্ঠানটির বিদেশে অর্থপাচারের বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। গ্রাহকদের টাকা যাতে লোপাট না হয় সে জন্য প্রতারণায় জড়িত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ও পেমেন্ট গেটওয়ে সঙ্গে সঙ্গেই জব্দ করা হচ্ছে।

তিনি জানান, এখন পযন্ত রিং আইডির মূল অ্যাকাউন্টের ২০০ কোটি টাকা ফ্রিজ করা হয়েছে। প্রতিমাসে প্রতিষ্ঠানটিতে গ্রাহকের কাছে থেকে ১০০ কোটি লেনদেন হতে। শুধু গত সেপ্টেম্বর মাসে গ্রাহকের ২০০ কোটি টাকা রিং আইডির অ্যাকাউন্টে যায়।

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও সেনাবাহিনীর বিভিন্ন পদে চাকরি দেওয়ার কথা বলে এক কোটি টাকার বেশি হাতিয়ে নেওয়া প্রতারক চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

 

বিডি রয়টার্স/ এসএস



আজকের সব খবর