নানা অপরাধমূলক কাজে ব্যবহার হচ্ছে রহস্যময়ী প্রাইভেট

নানা অপরাধমূলক কাজে ব্যবহার হচ্ছে রহস্যময়ী প্রাইভেট bd royters

বেনাপোল: যশোরের বেনাপোল সীমান্তে নানা অপরাধমূলক কর্মকান্ডে ব্যবহৃত হচ্ছে রহস্যময়ী এক প্রাইভেটকার। সম্পূর্ন বেআইনি ভাবে প্রাইভেটকারটিতে একাধিক রং ব্যবহারে শোভাবর্ধন করে সড়কে দাপিয়ে বেড়ালেও অজানা রহস্যে প্রাইভেটকারটির ব্যাপারে কোন আইনি পদক্ষেপ গ্রহন করেন না যথাযথ কর্তৃপক্ষ।

গত বুধবার বিকালে সিলভার রং ও হলুদ রং সন্মলিত ( লম্বালম্বি স্টাইফ) প্রাইভেট কার যোগে প্রকাশ্য দিবালোকে বেনাপোলের বাহাদুরপুর ইউনিয়নের বাহাদুরপুর-লক্ষনপুর সড়ক হতে ফিল্ম স্টাইলে মাধ্যমিক পড়ুয়া এক ছাত্রীকে অপহরন করা হয়েছে বলে অভিযোগ মিলেছে।

অপহৃত স্কুল ছাত্রীর মামা জিয়াউর রহমান জানান, তার স্কুল পড়ুয়া ভাগনীকে অজ্ঞাতনামা যুবকেরা রাস্তার উপর হতে উঠিয়ে নিয়ে যাচ্ছে এমন সংবাদে তিনি ঘটনাস্থলে পৌছান। পরবর্তীতে লোক মারফত তিনি গাড়ির রং ও গাড়ির নাম্বার জানতে পারেন যার নাম্বার হলো যশোর গ-১১-০০৬১ (সিলভার ও হলুদ রং)। বিষয়টি জানিয়ে ইতিমধ্যেই তারা বেনাপোল পোর্ট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন বলে জানান তিনি।

অভিযোগটির তদন্ত কর্মকর্তা বেনাপোল পোর্ট থানার এস আই রোকনুজ্জামান জানান, অপহৃত মেয়েটির পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে উদ্ধার তৎপরতা চলমান রয়েছে। বর্ননা অনুযায়ী গাড়িটি সনাক্ত হয়েছে, তবে সিলভার ও হলুদ রং এর প্রাইভেটকারসহ মালিক ও চালক পালিয়েছে। প্রকৃতপক্ষে গাড়িটি আটক বা ভিকটিম উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত কোন কিছুর জট খুলছেনা বলে জানান তিনি।

বেনাপোল সীমান্তের একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেন বিগত কয়েক মাস ধরে শার্শা ও বেনাপোল সীমান্তে মাদক বহন ও অপহরনের মত নানা অপরাধমূলক কর্মকান্ডে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে রহস্যময়ী এই প্রাইভেট কারটি।

সীমান্ত জুড়ে এই অপরাধমুলক কর্মকান্ড পরিচালনার নেপথ্যে রয়েছে ঢাকা, যশোর ও বেনাপোল ব্যাপী একটি শক্তিশালী চক্র। আইন শৃংখলা বাহিনীর চক্রটির সাথে সম্পৃকত রয়েছে বলে গুঞ্জন রয়েছে। তাই মহাসড়কে সম্পূর্ন বেআইনী ভাবে বিভিন্ন রং ব্যবহার করে গাড়ি চালালেও জবাবদিহি করতে হয়না প্রশাসনকে।

একাধিক রং ব্যবহার বিষয়ে জানতে চাইলে যশোর বিআরটি এর সহকারী ইন্সপেক্টর আব্দুল মতিন জানান, গাড়ির কাগজপত্র বা ব্লু-বুকে উল্লেখিত একক রং ব্যতীত একাধিক রং ব্যবহার সম্পূর্ন বে-আইনী এবং অপরাধমূলক কর্মকান্ড, যা শাস্তিযোগ্য।

এলাকার আইন-শৃংখলা রক্ষা ও অপরাধ দমনে দ্রুত ছদ্মবেশী চক্রটির হোতাদের মুখোস উন্মোচন করার দাবি এলাকার সুশীল সমাজের।

 

বিডি রয়টার্স/এসএস