বিশ্বকাপে মনোবিজ্ঞানী নিয়োগ দেবে আইসিসি

বিশ্বকাপে মনোবিজ্ঞানী নিয়োগ দেবে আইসিসি

এবারের বিশ্বকাপ আসরে মনোবিজ্ঞানী রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের কারণে জৈব-সুরক্ষা বলয়ে খেলোয়াড়দের মানসিক স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে এ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে আইসিসি।

১৭ অক্টোবর থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ওমানে বিশ্বের ১৬ দলের অংশগ্রহণে শুরু হচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। মাসব্যাপী এ টুর্নামেন্টে খেলোয়াড়দের অধিকাংশ সময়ই কাটাতে হবে হোটেলবন্দি থেকে। মনোবিজ্ঞানী নিয়োগ করা প্রসঙ্গে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের জৈব নিরাপত্তার প্রধান অ্যালেক্স মার্শাল সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‌’দীর্ঘ সময় জৈব-সুরক্ষার মধ্যে থাকায় অনেকেরই মানসিক স্বাস্থ্য ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। এ কারণে সার্বক্ষণিক আইসিসির একজন মনোবিজ্ঞানী নিয়োজিত থাকবেন। প্রয়োজনে যে কোনো সময় মনোবিজ্ঞানীর সাথে কথা বলতে পারবেন।‌

এদিকে মানসিক অবসাদ কাটাতে সম্প্রতি ক্রিকেট থেকে অনির্দিষ্টকালের বিরতিতে গেছেন ইংল্যান্ডের বেন স্টোকস। এছাড়া বিভিন্ন সফর এবং টুর্নামেন্টে জৈব-সুরক্ষা বলয়ের কারণে অনেক খেলোয়াড়ের মধ্যেই মানসিক অবসাদ ফুটে উঠেছে। এছাড়া টানা জৈব-সুরক্ষা বলয়ের কারণে সংযুক্ত আরব আমিরাতে আইপিএলে অনেকেই অংশ নেননি। ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলিসহ শীর্ষস্থানীয় বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়দের মন্তব্যর পর খেলোয়াড়দের জন্য মানসিক অবস্থার দিকে জোর দিয়েছে আইসিসি।

এদিকে ভক্ত-সমর্থকদের কাছ থেকে খেলোয়াড়দের দূরে রাখা হবে বলেও জানিয়েছেন মার্শাল। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‌’খেলোয়াড়দের আলাদা রাখা হবে। ভক্ত এবং সমর্থকদের সঙ্গে সরাসরি মিশতে দেওয়া হবে না। দূরত্ব বজায় রাখার বিষয়টি নজরদারি করা হবে।‌ মোট ৩২ দিনের এই বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে অনুষ্ঠিত হবে ৪৫টি ম্যাচ। ১৭ অক্টোবর প্রথম রাউন্ডের ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। দুবাইয়ে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচ তথা ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ১৪ নভেম্বর।

কোভিড বাস্তবতা সত্ত্বেও বিশ্বকাপের আগে মাঠে দর্শক সংখ্যা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে আবুধাবি স্পোর্টস কাউন্সিল। মূলত আবুধাবি শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে দর্শক সংখ্যা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা।

বিডি রয়টার্স/এ কে জি



আজকের সব খবর